Ads by tnews247.com
ক্ষেত্র প্রস্তুত হলেই আন্দোলনের ডাকঃ খালেদা জিয়া

ক্ষেত্র প্রস্তুত হলেই আন্দোলনের ডাকঃ খালেদা জিয়া

Sat November 1, 2014     

দিন যতই যাচ্ছে বিএনপির সরকারবিরোধী আন্দোলন নিয়ে জনমনে নানা ধরনের প্রশ্ন দেখা দিচ্ছে। বর্তমান বাস্তবতার নিরিখে দলটি আদৌ রাজপথে সরকারের বিরুদ্ধে কার্যত আন্দোলন গড়ে তুলতে পারবে কিনা তা নিয়েও সাধারণ মানুষের মনে এক ধরনের সংশয়ের সৃষ্টি হয়েছে। একদিকে আন্দোলন দমনে সরকারের কঠোর অবস্থান ও অন্যদিকে দলের সাংগঠনিক হ-য-ব-র-ল অবস্থার মধ্যেই আসছে ডিসেম্বরেই নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নতুন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দাবিতে চূড়ান্ত আন্দোলনে যাওয়ার কথা ভাবছে বিএনপি। তবে আন্দোলনের গতি প্রকৃতি কি হবে এ বিষয়ে দলের শীর্ষ নেতারাও স্পষ্ট কোনো ধারণা দিতে পারছেন না।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া সার্বিক পরিস্থিতির ওপর নজর রেখে নিজেই আন্দোলনের কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করবেন। চূড়ান্ত আন্দোলনের ধরন, দিনক্ষণ নিয়েও কারো সঙ্গেই আগাম কোনো আলোচনা করছেন না তিনি। উপযুক্ত আন্দোলনের ক্ষেত্র প্রস্তুত হলেই কেবল সরকার পতনের চূড়ান্ত আন্দোলনের ডাক দেবেন ২০ দলীয় জোট নেত্রী।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য কে জানান, দেশব্যাপী চলমান গণসংযোগ কর্মসূচি শেষ হলে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকে রাজপথে কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা দেবে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। প্রাথমিক অবস্থায় নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে লাগাতার তিন থেকে চার দিনের হরতাল অথবা অবরোধ দিয়ে নতুনভাবে আন্দোলন শুরু হতে পারে। তবে চূড়ান্ত আন্দোলনে যাওয়ার বিষয়টি দলীয় চেয়ারপার্সনের ওপর নির্ভর করছে। অপর একটি সূত্র জানায়, ২৯ ডিসেম্বরের মার্চ ফর ডেমোক্রেসির আদলেই চূড়ান্তভাবে রাজধানীতে বড় ধরনের গণজমায়েত করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। তবে এবার দিনক্ষণ আগে থেকে ঘোষণা দেয়া নাও হতে পারে।

সরকার বিরোধী আন্দোলনের বিষয়ে স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জে. (অব.) মাহাবুবুর বলেন, জনগণ আন্দোলন চায়। আমাদের চেয়ারপার্সনের সম্প্রতি একাধিক জনসভায় সাধারণ মানুষের উপস্থিতিই প্রমাণ করে দেশব্যাপী জনগণ আন্দোলনের জন্য প্রস্তুত। জনগণ তাদের ভোটাধিকার ফিরে পেতে চাইছে। তবে আমি মনে করি চূড়ান্ত আন্দোলনের জন্য আমাদের ঢাকার দিকে বেশি মনোযোগী হতে হবে। ইতিমধ্যে আমাদের চেয়ারপার্সন ২০ দলীয় জোট নেত্রী খালেদা জিয়া আন্দোলন সংগ্রামকে সামনে রেখে ঢাকা মহানগর কমিটি পুনর্গঠন করেছেন। নতুন নেতাদের আন্দোলন সম্পর্কে দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন। আশা করি খুব শিগগিরই খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে সরকার পতনের আন্দোলন শুরু হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গুলশান কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, এবার আন্দোলন নিয়ে খালেদা জিয়া কঠোর অবস্থান নিতে যাচ্ছেন। আন্দোলন দমনে সাংগঠনিক নেতাদের ওপর কোনো ধরনের নির্যাতন করা হলে এর পাল্টা জবাব দিতেও প্রস্তুত তিনি। শীর্ষ নেতাদের গ্রেফতার অথবা আটক করে হয়রানি করার চেষ্টা হলে লাগাতার কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে। ওই কর্মকর্তা আরো জানান, আন্দোলনে নেতাদের মাঠে নামানোর বিষয়ে খালেদা জিয়ার কঠোর মনোভাবের কথা ইতিমধ্যে নেতাদের অবহিত করা হয়েছে। বিশেষ করে ঢাকা মহানগরীর নেতাদের তিনি আন্দোলনে স্ব স্ব এলাকায় নেতৃত্ব দিতে কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন। এমনকি যারা মাঠে থাকবে না তাদের তালিকা তৈরি করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

একটি সূত্র জানায়, আগামীতে নির্বাচনের মনোনয়ন অথবা দলীয় বড় পদ পেতে হলে নেতাদের মাঠে থাকতে হবে। অন্যথায় যে যত বড় নেতাই হোক তাদের মনোনয়ন নিশ্চিত নয় বলেও জানান ওই কর্মকর্তা।

সম্প্রতি সময়ে নিজের গুলশান কার্যালয়ে নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানদের সঙ্গে একাধিক মতবিনিময় সভায় খালেদা জিয়া তার এমন কঠোর মনোভাবের কথা নেতাদের জানিয়ে দিয়েছেন। সর্বশেষ সোমবার তিনি বরিশাল ও খুলনা জেলার জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। একটি সূত্র জানায়, ওই সভায় খালেদা জিয়ার বক্তব্যের পর নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা বিএনপির চলমান রাজনীতি ও আন্দোলন নিয়ে নিজেদের মতামত খোলামেলাভাবে তুলে ধরেন। অন্তত ৪০-৫০ জন এ সময় বক্তব্য দেন। নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানদের এসব বক্তব্যে মাঠ পর্যায়ে দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল, শীর্ষ নেতাদের রাজপথে না থাকার মতো বিষয়গুলো তুলে ধরেন।

বৈঠকে উপস্থিত বরিশাল বিভাগের এক নেতা কে বলেন, জবাবে খালেদা জিয়া বলেছেন, গতবার সারা দেশে আন্দোলন হলেও ঢাকার নেতারা ব্যর্থ হয়েছেন। কিন্তু এবার ঢাকার নেতাদের সফল হতে হবে। যে কোনো মূল্যে রাজপথে নামতে হবে। উপযুক্ত সময়ে নিজেও রাজপথে নামবেন বলেও বৈঠকে নেতাদের জানিয়েছেন খালেদা জিয়া।

এদিকে আন্দোলন শুরুর হুমকি-ধমকির মধ্যেই বিএনপির শীর্ষ নেতাদের আটক ও নেতাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলায় বিচার কাজ শুরুর ঘটনা দলটির নেতাকর্মীদের মাঝে নতুন করে আতঙ্ক বিরাজ করছে। গত শনিবার রাজধানীর ধানমণ্ডির বাসা থেকে সভা করার সময় যুবদল সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালসহ অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীকে আটক করা হয়। পরে তাদের বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে হাজির করা হয়। এদের মধ্যে আলালসহ কয়েকজনকে রিমান্ডেও নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে মরার ওপর খাঁড়ার ঘা হয়ে যোগ হয়েছে দলের ভেতর অভ্যন্তরীণ কোন্দল। সাংগঠনিকভাবে দলকে শক্তিশালী করতে গিয়েও বিএনপি হ-য-ব-র-ল অবস্থায় পড়েছে। রাজপথের সরকারবিরোধী কঠোর আন্দোলনকে সামনে রেখে ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের পর বিএনপি গত ১০ মাসে সাংগঠনিক কমিটি গঠনের ওপর জোর দেয়। এরই ধারাবাহিকতায় অন্তত ১৩-১৪টি জেলার পুরনো কমিটি ভেঙে দিয়ে নতুন আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছিল। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এসব অধিকাংশ জেলায় কেন্দ্র থেকে চাপিয়ে দেয়া আহ্বায়ক কমিটি নিয়ে একাধিক গ্রুপে বিভক্ত স্থানীয় নেতারা। নতুনভাবে গঠিত জেলার এসব কমিটির অধিকাংশই এখনো পূর্ণাঙ্গভাবে গঠন করতে পারেনি। অন্যদিকে বিএনপির আন্দোলনের অন্যতম চালিকাশক্তি জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল পুনর্গঠন নিয়ে রীতিমতো তুলকালাম কাণ্ড ঘটে চলেছে। গত ৬ অক্টোবর রাজিব আহসানকে সভাপতি ও আকরামুল হককে সাধারণ সম্পাদক করে ২০১ সদস্যের কমিটি ঘোষণার পর থেকে ছাত্রদলের একটি অংশ নতুন কমিটি বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ করে আসছে। কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে চলমান ছাত্রদলের বিক্ষোভে নয়াপল্টন দলের প্রধান কার্যালয়ে হামলার ঘটনাও ঘটেছে। ছাত্রদলের বিদ্রোহী ও পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা চেয়ারপার্সনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ের সামনেও ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। এখানেই শেষ নয় পদবঞ্চিতদের তোপের মুখে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বেশ কয়েক শীর্ষ নেতা। একপর্যায়ে পদবঞ্চিতদের সঙ্গে বৈঠক করেন মির্জা ফখরুল। সেই আশ্বাসে ছাত্রদলের পদবঞ্চিতরা তাদের বিক্ষোভ স্থগিত করে। এরপর ছাত্রদলের সঙ্কট নিরসনে খালেদা জিয়া দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে দায়িত্ব দেন। মির্জা আব্বাস একাধিক বৈঠক করেও পদবঞ্চিতদের ক্ষোভ নিরসন করতে ব্যর্থ হয়েছেন। পদবঞ্চিতরা তাদের দাবি-দাওয়া না মানলে আবারো বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু করার হুমকি দিচ্ছে। অন্যদিকে ঢাকা মহানগরীর নতুন আহ্বায়ক কমিটি গঠনের তিন মাস পেরিয়ে গেলেও থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ে কমিটি গঠনে তেমন একটা অগ্রগতি নেই। এ অবস্থার মধ্যে ডিসেম্বরে সরকারবিরোধী আন্দোলনের ফলাফল কি হবে তা দেখার জন্যই অপেক্ষা করছে বিএনপির তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

খালেদার গণসংযোগ: ডিসেম্বরের মাঝামাঝি চূড়ান্ত আন্দোলনে যাওয়ার প্রস্তুতি হিসেবে খালেদা জিয়া বিভিন্ন জেলায় গণসংযোগের পাশাপাশি নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানদের সঙ্গে ধারাবাহিক মতবিনিময় করছেন। গণসংযোগের অংশ হিসেবে ইতিমধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নীলফামারীতে জনসভা করেছেন তিনি। ১ নভেম্বর ২০ দলীয় জোটের উদ্যোগে নাটোরের জনসভায় খালেদা জিয়ার ভাষণ দেয়ার কথা রয়েছে। ১২ ও ২৯ নভেম্বর যথাক্রমে কিশোরগঞ্জ এবং কুমিল্লায় অনুরূপ জনসভা অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়াও ৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে রাজধানীর সোহ্রাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপি সমাবেশ করবে। ইতিমধ্যে সমাবেশের অনুমতি চেয়ে প্রশাসনের কাছে চিঠিও দিয়েছে দলটি।






Facebook এ আমরা

আরও খবর


দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণ করেছে আদালত রাজধানীর বনানীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণ করেছে আদালত। আগামী ৯ জুলাই চার্জ গঠনের শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

 

‘অনুপ্রবেশকারী মিয়ানমার নাগরিক দ্বারা দেশ ক্ষতিগ্রস্ত’ ‘অনুপ্রবেশকারী মিয়ানমার নাগরিকদের দ্বারা নানাভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে বাংলাদেশ।’ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে সরকারি দলের সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলমের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্র

 

দেশে ২৫ লাখ ৮৭ হাজার বেকার ত্রৈমাসিক শ্রমশক্তি জরিপ প্রতিবেদন অনুযায়ী বাংলাদেশে মোট বেকারের সংখ্যা ২৫ লাখ ৮৭ হাজার জন। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য জাহান আরা বেগম সুরমার এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে এসব তথ্য জ

 

সিলেট ও চট্টগ্রামে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে, যা উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় বিরাজ করছে।

 

সংসদে গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিল উত্থাপন বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট বিল-২০১৭ জাতীয় সংসদে উত্থাপন করা হয়েছে। গম গবেষণা কেন্দ্রকে বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউটে রূপান্তর করার প্রয়োজনীয় বিধানের প্রস্তাব করে কৃষিমন্ত্রী ব

 

পুলিশে ৭৫ হাজার ৩০৬টি নতুন পদ সৃষ্টি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন বলেছেন, দেশের পুলিশ বাহিনীকে আরো আধুনিক ও গতিশীল করতে পুলিশ বাহিনীতে ৭৫ হাজার ৩০৬টি (পুলিশ ও নন-পুলিশ) নতুন পদ সৃষ্টি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে জাতীয় পা

 

অন্যান্য

দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণ করেছে আদালত

‘অনুপ্রবেশকারী মিয়ানমার নাগরিক দ্বারা দেশ ক্ষতিগ্রস্ত’

দেশে ২৫ লাখ ৮৭ হাজার বেকার

সিলেট ও চট্টগ্রামে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা

সংসদে গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিল উত্থাপন

পুলিশে ৭৫ হাজার ৩০৬টি নতুন পদ সৃষ্টি

আজ রাত থেকে ১৮ ঘণ্টা সিম বিক্রি বন্ধ

‘ফিটনেসবিহীন নৌযান চলবে না’

বিক্রির আগেই টিকিট শেষ লঞ্চের

সুইডেন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

এসি টিকিট যেন সোনার হরিণ

দেশের ভাবমূর্তিবিরোধী কিছু করবেন না : প্রধানমন্ত্রী

ঈদে নির্বিঘ্ন যাতায়াত নিশ্চিতে আট সুপারিশ

ঈদের আগে-পরে পাঁচ দিন বাল্কহেড কার্গো চলাচল বন্ধ

পাহাড় ধসে প্রাণহানিতে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের শোক

সাত দিনের মধ্যে ভোগান্তি নিরসনের নির্দেশ ভূমিমন্ত্রীর

বিআইডব্লিউটিসির অগ্রিম টিকিট ২২ জুন থেকে

জবাবদিহির জন্যই কর্মসম্পাদন চুক্তি: পাটমন্ত্রী

ফের ভারি বর্ষণ ও ভূমিধসের শঙ্কা

বেতন-ভাতা ছাড়া বেআইনিভাবে ছাঁটাইয়ের অভিযোগ

সম্পাদক: মেহারাব খান মুন
৩৮ গরিব এ-নেওয়াজ এভিনিউ, উত্তরা, ঢাকা ১২৩০. ইমেইল: info@tnews247.com
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত tnews247.com ২০১৪
Hosted & Developed by N. I. Biz Soft