Ads by tnews247.com
ঈদুল ফিতরে করণীয় ও বর্জনীয়

ঈদুল ফিতরে করণীয় ও বর্জনীয়

Sat July 26, 2014     

ঈদ শুধু আনন্দের ফ্রেমেই বন্দি নয় বরং তা এক মহান ইবাদত। তাই কোরআন-হাদিসের বিধি-নিষেধ মেনেই ঈদ উদযাপন করতে হবে। ঈদের রাত শুধু আনন্দ-আহ্লাদে অযথা কাজে লিপ্ত থেকে কাটিয়ে দেয়ার নয়। এ রাতে ইবাদতের রয়েছে বিশেষ পুরস্কার।

ঈদের মূল আনুষ্ঠানিকতাই হলো নামাজ। ঈদের নামাজ ওয়াজিব। যদি কেউ আদায় না করে তাহলে অবশ্যই গোনাহগার হবে। ঈদের নামাজের অন্যতম সুন্নত হলো প্রশস্ত মাঠে তা আদায় করা। মসজিদে নববীতে সালাত আদায় করার ফজিলত বহুগুণ বেশি হওয়া সত্ত্বেও নবীজি (সা.) কখনও মসজিদে ঈদের সালাত আদায় করেননি। শুধু একবার বৃষ্টির কারণে তিনি মসজিদে নববীতে আদায় করেন।

ঈদের দিনে করণীয়ঃ

খুব ভোরে ঘুম থেকে জেগে মিসওয়াকসহ অজু করে ফজরের নামাজ নিজ মহল্লার মসজিদে আদায় করা। ভালোভাবে গোসল করা। সাধ্যমতো উত্তম (পবিত্র ও পরিচ্ছন্ন) পোশাক পরিধান করা। সুগন্ধি ব্যবহার করা। সাদাকাতুল ফিতর আদায় করা। ঈদের জামাতে যাওয়ার আগে কিছু খেজুর বা মিষ্টিদ্রব্য খাওয়া। সামর্থ্য অনুযায়ী উত্তম খাবারের ব্যবস্থা করা। অধিক পরিমাণে দান-সদকা করা। এতিম, মিসকিন ও গরিবদের সাধ্যমতো পানাহার করানো। দেরি না করে, হেঁটে তাকবিরে তাশরিক বলতে বলতে ঈদগাহে যাওয়া। ইমাম মিম্বারে বসলে তাকবিরে তাশরিক বন্ধ করে তার আলোচনা শোনা। চেহারায় আনন্দ প্রকাশ করা। ঈদগাহে এক রাস্তা দিয়ে যাওয়া, অন্য রাস্তা দিয়ে ফেরা। দোয়া ও ইস্তেগফার করা। আত্মীয়স্বজন ও প্রতিবেশীর খোঁজখবর নেয়া। শুভেচ্ছা বিনিময় করা। জীবন চলার পথে কারও সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি ঘটতে পারে। অন্যকে ক্ষমা করে সেই সম্পর্কের দূরত্ব ঘোচানোর এক সুযোগও এনে দেয় ঈদ। সূরা আলে ইমরানের ১৩৩নং আয়াতে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন যারা নিজেদের রাগকে সংবরণ করে এবং মানুষের প্রতি ক্ষমা প্রদর্শন করে তাদের জন্য ক্ষমা এবং আকাশ ও জমিন সমান প্রশস্ত জান্নাতের পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছেন।

ঈদের দিনে বর্জনীয়ঃ

ঈদের দিন রোজা রাখা হারাম। সহিহ বোখারি ও মুসলিম শরিফের হাদিসে এসেছে, ঈদের দিন রোজা রাখতে রাসূলুল্লাহ (সা.) নিষেধ করেছেন। ঈদের নামাজের আগে কোনো নফল নামাজ না পড়ার ব্যাপারেও আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) থেকে বোখারি ও মুসলিম শরিফের হাদিসে বর্ণিত। তাছাড়া আমাদের ঈদ উদযাপনকে যদি রাসূলুল্লাহ (সা.) ও সাহাবায়ে কেরামের (রা.) ঈদ উদযাপনের সঙ্গে মিলাই অবশ্যই বলতে হবে যে, এ ঈদ ইসলামের ঈদ নয় বরং আমরা বিজাতীয় সংস্কৃতির আদলে ঈদ উদযাপন করছি। ঈদগাহে নামাজে অংশগ্রহণ পর্যন্তই আমাদের ইসলামী ঈদ সীমাবদ্ধ। সারা দিন টেলিভিশনে অশ্লীল সিনেমা, নাটক দেখা, কনসার্টের নামে বেহায়াপনা, মহিলাদের সেজেগুজে সৌন্দর্য প্রদর্শনের যে প্রতিযোগিতা শুরু হয় তা নিশ্চয়ই ইসলামী সংস্কৃতি নয় বরং বিজাতীয় সংস্কৃতি। বিজাতীয় সংস্কৃতি অনুসরণকারীদের জন্য রয়েছে কঠিন শাস্তি। আবদুল্লাহ ইবনে ওমর (রা.) থেকে বর্ণিত রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেন, যে ব্যক্তি অন্য জাতির সঙ্গে সাদৃশ্য রাখবে সে তাদের দলভুক্ত (জাহান্নামী) হবে। আবু দাউদ। তাই ঈদে সব বিজাতীয় আচার-অনুষ্ঠান বর্জন করতে হবে। ব্যক্তি, পরিবার ও সমাজের সব ক্ষেত্রে নিশ্চিত করতে হবে ইসলামী পরিবেশ। শুধু ঈদ নয়; জীবনের বাঁকে বাঁকে ইসলামই হোক আমাদের পথ চলার সঙ্গী। চালচলন, পোশাক-পরিচ্ছদ এবং শুভেচ্ছা বিনিময়ও হোক ইসলামী সংস্কৃতি অনুসারেই।







Facebook এ আমরা

আরও খবর


দাম্পত্য সম্পর্কের ৫০ টি বিষয় যা আপনার জেনে রাখা প্রয়োজন ১৯.

 

দান-সদকায় গুনাহ মাফ হয় রহমত, ক্ষমা ও মুক্তির মাস মাহে রমজান। এ মাসে সকল নেক কাজে অধিক সওয়াব লাভ করা যায়। এবাদতের পাশাপাশি দান-সদকা করলে তার সওয়াবও অনেক বেশি। রমজান মাসে একটি গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা ও করণীয় হলো এই দান-সদকা।

 

রোজাদারকে দয়া ও রহমতের শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে মাহে রমজান দয়া ও করুণার মাস। দয়া ও রহমত হচ্ছে আল্লাহ তাআলার বিশেষ অনুগ্রহ। স্বয়ং রাব্বুল আলামিন মানুষকে রহম করেন এই মাসে। তিনি যাকে ইচ্ছা তার অন্তরে এই রহমত দান করেন। তা

 

বদরের যুদ্ধ ও সুমহান শিক্ষা রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের মাস রমজান। মোমিন মুসলমানদের জন্য এ মাসটি অনেক তাৎপর্যপূর্ণ। এ মাসেই পবিত্র কোরআন নাজিল হয়েছে। বিশ্বমানবতার মুক্তির দূত রহমতুল্লিল আলামিন হজরত মোহাম্মদ মুস্তাফা (সা.)-এর নবু

 

ইবাদত করতে হবে এখলাসের সঙ্গে মোমিনের জন্য মাহে রমজান আল্লাহর তাআলার পক্ষ থেকে অশেষ রহমত স্বরূপ। রমজানে রোজা রাখার পাশাপাশি বান্দা যত বেশি ইবাদত করবে তত বেশি সওয়াব পাবে। তাই আল্লাহর রহমত ও মাগফিরাত পেতে আমাদের বেশি বেশি ইবাদত ক

 

১৬তম রোজার সাহরি ও ইফতার সময় ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা ১৬তম রোজা পালন করবেন সোমবার। এই দিনের রোজা রাখতে সাহরি খেতে হবে রোববার দিবাগত রাত ৩টা ৩৮মিনিটের পূর্বে।

 

কুরান তেলাওয়াত


অন্যান্য

দাম্পত্য সম্পর্কের ৫০ টি বিষয় যা আপনার জেনে রাখা প্রয়োজন

দান-সদকায় গুনাহ মাফ হয়

রোজাদারকে দয়া ও রহমতের শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে

বদরের যুদ্ধ ও সুমহান শিক্ষা

ইবাদত করতে হবে এখলাসের সঙ্গে

১৬তম রোজার সাহরি ও ইফতার সময়

রমজান ধৈর্য ও সংযমের মাস

তওবা-এস্তেগফারের মাস মাহে রমজান

চলতি বছরের ফিতরা জনপ্রতি সর্বনিম্ন ৬৫ টাকা, এবং সর্বোচ্চ ১ হাজার ৯৮০ টাকা

জনপ্রতি ফিতরা সর্বনিম্ন ৬৫, সর্বোচ্চ ১৯৮০ টাকা

রমজানে ওমরা করলে হজ করার সওয়াব!

ইফতারের সময় দোয়া কবুল হয়

স্রষ্টার কাছে পূর্ণ আত্মসমর্পণ করতে হবে

সম্মান দেখানোর জন্য কী বসা থেকে উঠে দাঁড়ানো ইসলামে জায়েজ ?

রমজান সম্পর্কে কিছু কথা আপনি যানেন কী?

রমজানে তারাবির নামাজের নিয়ম, নিয়ত ও দোয়া

সকল জেলার প্রথম রোজার সেহরীর সময়

সন্ধ্যায় জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে

আদৌ পনেরো শাবানের রাত্রির কোনো ফজিলত বা বিশেষত্ব আছে কি?

প্রতিবন্ধীদের জন্য মসজিদ, রয়েছে খুৎবা শোনার ব্যবস্থা


৩৮ গরিব এ-নেওয়াজ এভিনিউ, উত্তরা, ঢাকা ১২৩০. ইমেইল: info@tnews247.com
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত tnews247.com ২০১৪
Hosted & Developed by N. I. Biz Soft